বন্ধু হতে চেয়ে তোমার, শত্রু বলে গন্য হলাম ।

বন্ধু হতে চেয়ে তোমার, শত্রু বলে গন্য হলাম 
বন্ধু হতে চেয়ে তোমার, শত্রু বলে গন্য হলাম 
তবু একটা কিছু হয়েছি যে, তাতেই আমি ধন্য হলাম 
বন্ধু হতে চেয়ে তোমার, শত্রু বলে গন্য হলাম। 

না হয় ভেজালে না একটু হাসি বৃষ্টিতে 
আমায় দেখে জ্বাললে আগুন, ঐ দৃষ্টিতে 
না হয় ভেজালে না একটু হাসি বৃষ্টিতে 
আমায় দেখে জ্বাললে আগুন, ঐ দৃষ্টিতে 
তবু অন্য হাজার জনের মাঝেই 
আমি অনন্য হলাম 
শত্রু বলে গন্য হলাম 
বন্ধু হতে চেয়ে তোমার, শত্রু বলে গন্য হলাম। 

তোমার অনুরাগে নইবা হলাম ছন্দময় 
বিরুপমনের ভাবনা হলাম, সে-ও মন্দ নয় 
আমি বৈরী হলে ও দোষ কি বলো 
সে তোমার জন্য হলাম 
শত্রু বলে গন্য হলাম 
বন্ধু হতে চেয়ে তোমার, শত্রু বলে গন্য হলাম। 

বন্ধু হতে চেয়ে তোমার, শত্রু বলে গন্য হলাম 
বন্ধু হতে চেয়ে তোমার, শত্রু বলে গন্য হলাম 
তবু একটা কিছু হয়েছি যে, তাতেই আমি ধন্য হলাম 
বন্ধু হতে চেয়ে তোমার, শত্রু বলে গন্য হলাম। 

নীলা - মাইলস

তোমার চোখে
চেয়ে দেখি আমি জীবনটাকে
ভালোবাসার স্মৃতিগুলো
তোমাকেই শুধু চায়
কিছু কথা
কিছু আশা নিয়ে জীবনটাতে
অনাবিল সব সুখের ছোয়ায়
তোমাকে কাছে চায়
ঐ সুদূর নিলীমায়
মন হারিয়ে যেতে চায়
যেথায় সময় থেমে রয়
তোমারি আশায়

নিলা তুমি কি চাও না
হারাতে ঐ নিলীমায়
যেখানে দুটি মন এক
হয়ে ছবির মত জেগে রয়
নিলা তুমি কি জানো না
আমার হৃদয়ের ঠিকানা
যেখানে তোমার আমার প্রেম
মিলে মিশে এক হয়

ফুলের মত
সৌরভে ভরিয়ে দিয়ে
তোমায় আমি ভালোবেসে
আরো কাছে পেতে চাই
দুরন্ত প্রেম ঝর্না ধারারই মত
ছুটে চলে অবিরত
তোমার ঠিকানায়
ঐ সুদূর নিলীমায়
মন হারিয়ে যেতে চায়
যেথায় সময় থেমে রয়
তোমারি আশায়

নিলা তুমি কি চাও না
হারাতে ঐ নিলীমায়
যেখানে দুটি মন এক
হয়ে ছবির মত জেগে রয়
নিলা তুমি কি জানো না
আমার হৃদয়ের ঠিকানা
যেখানে তোমার আমার প্রেম
মিলে মিশে এক হয়

হয়তো তোমারি জন্য - মান্না দে

হয়তো তোমারি জন্য
হয়েছি প্রেমে যে বন্য
জানি তুমি অনন্য
আশার হাত বাড়াই
যদি কখনো এ প্রান্তে
চেয়েছি তোমায় জানতে
শুরু থেকে শেষ প্রান্তে
শুধু ছুটে গেছি তাই

আমি যে নিজেই মত্ত
জানিনা তোমার শর্ত
যদি বা ঘটে অনর্থ
তবু তোমাকে চাই

আমি যে দুরন্ত
দু’চোখে অনন্ত
ঝড়ের দিগন্ত জুড়েই
স্বপ্ন চড়াই
তুমি তো বলনি মন্দ
তবু কেন প্রতিবন্ধ
রেখোনা মনের দ্বন্দ্ব
সব ছেড়ে চল যাই

আমি যে কে তোমার - কিশোর কুমার

আমি যে কে তোমার
তুমি তা বুঝে নাও
আমি চিরদিন তোমারি তো থাকবো
তুমি আমার আমি তোমার
এ মনে কি আছে
পারো যদি খুঁজে নাও
আমি তোমাকেই বুকে ধরে রাখবো
তুমি আমার আমি তোমার
আমি যে কে তোমার
তুমি তা বুঝে নাও

কেন আজ সরে আছো দূরে
কাছে এসে হাত দুটো ধরো
শপথের মন কাড়া সুরে
আমার তোমারি তুমি করো
ও… তোমারই স্বপ্ন দুচোখেই আমি আঁকবো

ওপাড়ের ডাক যদি আসে
শেষ খেয়া হয় পাড়ি দিতে
মরণ তোমায় কোনদিনও
পারবেনা কভু কেড়ে নিতে
ও…সুখে দুঃখে আমি তোমাকেই কাছে ডাকবো

ভাল আছি ভালো থেকো - তোমাকে চাই

ভাল আছি, ভালো থেকো
আকাশের ঠিকানায় চিঠি লিখো,
দিও তোমার মালা খানি
বাউলের এই মনটারে ।
আমার ভিতর বাহিরে অন্তরে অন্তরে
আছো তুমি হৃদয় জুড়ে ।


পুষে রাখে যেমন ঝিনুক
খোলসের আবরনে মুক্তর সুখ,
তেমনি তোমার নিবিড় চলা
ভিতরের নীল বন্দরে ।
আমার ভিতর বাহিরে অন্তরে অন্তরে
আছো তুমি হৃদয় জুড়ে ।


ঢেকে রাখে যেমন কুসুম
পাপড়ির আবডালে ফসলের ঘুম,
তেমনি তোমার নিবিড় ছোয়া
গভীরের এই বন্দরে ।
আমার ভিতর বাহিরে অন্তরে অন্তরে
আছো তুমি হৃদয় জুড়ে ।

যেভাবেই তুমই সকাল দেখো - শুভমিতা



যে ভাবেই তুমি সকাল দেখো
সূর্য কিন্তু একটাই
যত ভাগে ভাগ করোনা প্রেম
হৃদয় কিন্তু একটাই


অনেকেই বলে মরণ অনেক
জীবন সে নাকি একটাই
প্রতিবার প্রেমে নতুন জনম
জীবন কি করে একটাই

অনেকেই বলে অনেক কথা
কথার কথা তো সবটাই
কথার বাঁধনে হৃদয় ফেরার
সঠিক কথা একটাই

ইচ্ছে ঘুড়ি - শিরোনামহীন

এই হাওয়ায় উড়াও তুমি, তোমার যত ইচ্ছে ঘুড়ি
চুপি চুপি মেঘের মেলা, তোমার আকাশ করছে চুরি
সূর্য বসাও আকাশের নীল, ইচ্ছের রং গোলাপী হলে
দিগন্ত রেখায় সূর্য নামে, ব্যস্ত সময় যাচ্ছে চলে

হঠাৎ খেয়ালী এই ঝড়ো হাওয়ায়, উড়ছে তোমার ইচ্ছে ঘুড়ি
উড়াও উড়াও সুতোর টানে, আকাশের নীল যাচ্ছে চুরি

শুভ্র সেই মেঘের তীরে, তোমার সব ইচ্ছে উড়ে
আকাশ খেয়ালী মনে, হারায় কিছুই না জেনে

তোমার সুতোয় বাধা আকাশ, ঝড়ো হাওয়ায় রং হারালে
নির্বাক ইচ্ছে, আচমকা দিশেহারা

এই আলোয় হাঁটছো একা, সঙ্গী করো আমায় তুমি
বেয়াড়া যতো মেঘের ছায়া, করছে চুরি স্বপ্নভূমি

নীলের আকাশ গোলাপী হলে, ইচ্ছে ঘুড়ি যাচ্ছে চলে
শুতোয় বাঁধা ছাড়িয়ে আকাশ, অন্য ভূবন দেখবে বলে

হঠাৎ খেয়ালী এ ঝড়ো হাওয়ায়, ভাংছে তোমার মেঘলা রেখা
উড়াও উড়াও সুতোর টানে, আকাশ আবার হবে যে দেখা